Breaking News
Home / Breaking News / দুই বাংলার বৃহত্তম নেটওয়ার্ক দৈনিক শব্দনগরের সেরা চার সাহিত্য

দুই বাংলার বৃহত্তম নেটওয়ার্ক দৈনিক শব্দনগরের সেরা চার সাহিত্য

বিষয় : কবিতা
শিরোনাম : মাতৃগর্ভে ভাষার শিক্ষা
কলমে : সুরজিৎ পাল
তারিখ : ২০.০২.২০২২

ভাষা স্বীকৃতি আন্দোলনে বাঙালি জাতি,
১৯৫২ র ২১শে ফেব্রুয়ারি শাসক চলায় গুলি,প্রাণ যায় অনেক গুলি।
মাতৃ জঠরে মাতৃভাষা পরিচিতি,
যে মা ধরে কোলে সে ভাষাই শিখি।
দেশ দেয় মাতৃভাষার মর্যাদা,
সন্তান ধ্বজা হাতে করে পৃষ্ঠপোষকতা।
ভাষা রক্ষায় মাতৃদুগ্ধ ঋণ দায়বদ্ধ,
বাঙালি জাতি ভাষা গর্বে হয় ঐক্যবদ্ধ।
ভাষা রক্ষার লাগি করে যুদ্ধ,
ছাত্র,যুব, মহিলা, পুরুষ সবে মিলে করে সমৃদ্ধ।
বিশ্ব বাসি ভাষার তরে ঐক্যে বলীয়ান,হয় আগুয়ান।
১৯৯৯-এর ১৭ই নভেম্বর রাষ্ট্রসংঘের প্যারিস সম্মেলনে আলোচ্য,
স্বীকৃতির জন্য বাংলাদেশ তুলে ধরে মাতৃভাষা মালঞ্চ।
২০০০ সনে ‘২১শে ফেব্রুয়ারি’ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস রূপে পায় স্বীকৃতি।
ভাষার তরে বাঙালি জাতির বলীদান,
রক্তের ফিনকি তে গেঁথে হয়েছে সুমহান ।

——————————————
18/02/2022
কবিতা : বাংলা বর্ণমালা কুড়াই আমি
কবি: রৌনকা আফরুজ সরকার

দুই হাতে আমি
কুড়াই বাংলা বর্ণমালা,
তবুও সয়না প্রাণে
ভাষা শহিদদের হারানোর জ্বালা।

এক হাতে কুড়াই
আমি বাংলা স্বর বর্ণ,
অন‍্য হাতে কুড়াই
আমি বাংলা ব‍্যাঞ্জন বর্ণ।

বর্ণ মালিনী আমি
বর্ণ দিয়ে গাথি মালা,
স্বাধীনভাবে আজ বর্ণ তুলি
উর্দু ভাষার মুখে দিয়ে তালা।

আমাদের হাতে বর্ণমালা তুলে দিতে
জীবন দিলেন সালাম,রফিক সহ অনেক মুখ,
আন্দোলন ও রক্তের বিনিময়ে পেয়েছি
আমরা ভাষা স্বাধীনতার সুখ।

সারা বিশ্বে চলছে
স্বাধীন ভাষা বাংলার বড়াই,
দুই হাত ভরে এখন আমরা
স্বাধীন বর্ণমালা কুড়াই।

——————————————

#শুদ্ধতা
#শিমলা

চাওয়া গুলো আদিখ্যেতায় নিলজ্জ,
পাওয়ার সাথে সন্ধিতে তার দারুন ভয়।
আমরা শুধু আঁকতে জানি চিন্তালোক,
সীমার কাছে তাই আমাদের হারতে হয়।
হারা জেতার এই যে খেলা চলছে রোজ,
চেতন মনে অবচেতন, উদগীরণের দিচ্ছে ভোজ।
বড়ো কঠিন জীবন বাজীর এই যে পাঠ,
পোশাক বিহীন চলছে যেন ভীষণ ঠাট।
তোমার আমার দ্বন্দ্ব চলে জীবন বোধের অন্দরে,
ঠুনকো জীবন অষ্টপ্রহর ঘোরের মাঝে হাতড়ে খুঁজে,
আলোর গান…….
দ্বিধাহীনের শুদ্ধ স্নান।


——————————————-

কবিতা-
“রক্তে রাঙা ফেব্রুয়ারী”
-কবি আব্দুল হামিদ সরকার।

একুশে ফেব্রুয়ারী, তোমায় স্মরণ করি।
বাংলা ভাষার গান গেয়ে, মোরা দু’নয়ন ভরি।
দামাল ছেলে বাহুর বলে, বুকের রক্ত ঢেলে দিলে।
প্রতিবাদে, প্রতিরোধে, বাংলা ভাষার জন্ম নিলে।
একুশের রক্ত বেয়ে, জন্ম নিল অধিকারের।
বাঙালি সব এক হয়ে, গর্জে উঠল হুংকারে।
শোষণের চাকা আটকে গেল, ধাপ্পাবাজি ফসকে গেল,
আকাশেতে ঝড় উড়িয়ে বাংলা ভাষার আওয়াজ এল।
বরকত, সালাম জীবন দিল, বাংলা ভাষা বপণ হল।
রক্ত, লোলুপ দৃষ্টি মেলে, শাসক-গোষ্ঠী মেনে নিল।
একুশ মানে বাংলা ভাষা, সারা অঙ্গে জাগায় আশা।
বাংলা ভাষায় কথা বলি, এই ভাষাতেই মাকে ডাকি,
স্মৃতির পাতা ঘেটে ঘেটে, স্মরণ করি ফেব্রুয়ারী।

——————————————

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com