Breaking News
Home / Breaking News / পল্টন থানা যুবলীগের সভাপতিসহ ৯ জনের রিমান্ড

পল্টন থানা যুবলীগের সভাপতিসহ ৯ জনের রিমান্ড

ঢাকা প্রতিনিধিঃপুলিশকে মারধরের মামলায় পল্টন থানা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ নাজমুল হোসাইন মিরণসহ নয়জনকে একদিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।
আজ বুধবার ঢাকার মহানগর হাকিম সাদবির ইয়াসির আহসান চৌধুরী এ আদেশ দেন।
ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে আজ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পল্টন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর হোসেন পল্টন থানা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ নাজমুল হোসাইন মিরণসহ ৯ জনকে হাজির করে সাতদিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। ওই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক সাতজনের প্রত্যেককে একদিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।
রিমান্ডকৃত অপর আসামিরা হলেন -ওয়াহিদুল ইসলাম, আরিফ, শেখ রহিম, রাসেল, শাহ্ আলম চঞ্চল, আরিফ হোসেন, কাওসার আহমেদ সাইফ ও মোয়াজ্জেম।
এদিকে পল্টন থানায় প্রতারণার অভিযোগের আরেক মামলায় আরো সাত আসামিকে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) আশরাফুল হক হাজির করে সাতদিন করে রিমান্ড আবেদন করেন। ওই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে একই বিচারক রিমান্ডের আবেদন নাকচ করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।
আসামিপক্ষের আইনজীবী আব্দুর রহমান হাওলাদার বিষয়টি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।
কারাগারে যাওয়া আসামিরা হলেন- বি এম আসলাম হোসেন, মেহেদী হাসান, জুয়েল, শরিফুল ইসলাম, সোহেল তালুকদার, সম্রাট ও সাখাওয়াত হোসেন।
নথি থেকে জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার পল্টনের একটি ভবনে অর্থ আত্মসাৎ, ভাঙচুর ও পুলিশকে মারধরের ঘটনায় পল্টন থানা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ নাজমুল হোসাইন মিরণসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা হয়। ওই মামলায় আজ তাদের আদালতে হাজির করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করা হয়।
এজাহার থেকে জানা যায়, গতকাল সন্ধ্যায় পল্টনের আজাদ সেন্টারের ১৮ তলায় বিশ্বাস ট্রেডার্স ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি প্রতিষ্ঠানে পল্টন থানা ছাত্রলীগ সভাপতি মিরণ তার দলবল নিয়ে চাঁদাবাজি করতে যান। এ সময় তারা প্রতিষ্ঠানের লোকজনের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় ছাত্রলীগকর্মীদের পুলিশ থামানোর চেষ্টা করে। কিন্তু মিরণ ও তার কর্মীরা পুলিশের উপর হামলা চালালে পুলিশের পাঁচ সদস্য আহত হন।
এ ঘটনায় পুলিশ পল্টন থানা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ নাজমুল হোসাইন মিরণসহ ১৬ জনকে গ্রেপ্তার করে।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com