Breaking News
Home / Breaking News / মুক্তিযোদ্ধারা দেশ স্বাধীন করেছে বলেই আজকে এ দেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিনত হয়েছে.. মুক্তিযুদ্ধা বিষয়কমন্ত্রী আ. ক. ম মোজাম্মলে হক

মুক্তিযোদ্ধারা দেশ স্বাধীন করেছে বলেই আজকে এ দেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিনত হয়েছে.. মুক্তিযুদ্ধা বিষয়কমন্ত্রী আ. ক. ম মোজাম্মলে হক

ভান্ডারিয়া থেকে রিটন মোস্তফা ঃ
মুক্তিযোদ্ধা বিষয়কমন্ত্রী আ.ক.ম মোজ্জাম্মেল হক বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধারা দেশের যে কোন বিশেষায়িত সরকারের মাধ্যমে সকল মুক্তিযোদ্ধাকে পরিচয় পত্র প্রদান করা হবে। সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা উন্নীত করে ২০ হাজার করেছে।আমার চাই মুক্তিযোদ্ধারা একটা সম্মান জনক জীবন যাপন করতে পারে । মুক্তিযোদ্ধার দেশটা স্বাধীন করেছে বলেই আজকে এ দেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিনত হয়েছে।
আমরা একটি ভুখন্ড পেয়েছি, শেখ মজিবুর রহমানের মতো একজন নেতা পেয়েছিলাম, তিনি যখন দেশের জন্য গর্জে ওঠেছিলেন তখন এ দেশের ৭ কোটি বাঙ্গালী দেশকে রক্ষা করতে গর্জে উঠেছেন, ত্রিশ লক্ষ শহীদের প্রানের বিনিময়ে আমাদের এই বাংলাদেশ। মন্ত্রী
আরো বলেন সকল অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের বসত ঘর দেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৪ হাজার ২শকোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। এ ছাড়া যত মানুষ গৃহহীন আছে প্রত্যেককে বাড়ী-ঘর দেয়া হবে ৯ লক্ষ পরিবারকে বাড়ী-ঘর দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের ।

তিনি গতকাল সোমবার দুপুরের ভা-ারিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সুধীজনদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, চারদলীয় জোট সরকার ছিলেন ধর্মের নাম নিয়ে ক্ষমতায় যায়, ধর্ম বিশ্বাস করে না ধর্ম কায়েম করতে চায় ওরা ধর্মব্যবসায়ী । সৎ লোকের শাসনের নামে সারা দেশে অন্যায় অত্যাচার, লুটপাট করেছে। যে কথা বলে সে কাজ করে না, ওরা মোনাফেক। ওরা ক্ষমতায় থাকাকালীন লুটতরাজ করে দেশের সম্পদ পাঁচার করেছে। এ দেশের মানুষের হক নিয়ে ছিনিবিনি খেলেছে, কিন্তু আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শাসনামলেই এ দেশের অর্থনীতি, উন্নয়ন অব্যাহত রয়েছে। আগামীতে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় রূপান্তরিত হবে।

উপজেলা নির্বাহী নির্বাহী অফিসার সীমা রাণী ধর এর সভাপতিত্ব বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, জাতীয় পার্টি জেপি চেয়ারম্যান, সাবেক মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু এমপি, তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদেরকে শোষণের বিরুদ্ধে বৈশম্যের বিরুদ্ধে স্বপ্ন দেখিয়েছেন এবং ঐক্যবদ্ধ হতে শিখিয়েছেন বঙ্গবন্ধু আন্দোলনটাকে ধাপে ধাপে শেষ পর্যায়ে নিয়ে গেছে।
টুঙ্গিপাড়া আ.লীগ এর দপ্তর সম্পাদক হাফিজুর রশিদ তারিকের সঞ্চালনায় আর বক্তব্য রাখেন পিরোজপুর জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মহারাজ, পুলিশ সুপার মো.সাইদুর রহমান, ভান্ডারিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মিরাজুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা খান এনায়েত করিম, উপজেলা আ.লীগ সভাপতি ফায়জুর রশিদ খসরু, উপজেলা জেপি’র যুগ্ম আহবায়কগোলাম সরওয়ার জোমাদ্দার প্রমূখ। মুক্তিযোদ্ধা বিষয়কমন্ত্রী এর আগে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

এতে আরো উপস্থিত ছিলেন ভান্ডারিয়া উপজেলা

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান মনিরুল হক মনি জমাদ্দার, উপজেলা আওয়ামীলীগ এর যুগ্ম সাধারন সম্পাদক এম.এ রাজ্জাক ফারুক, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি স্বপন শিকদার,উপজেলা যুবলীগের সভাপতি টিপু তালুকদার, সাধারন সম্পাদক এহসাম হাওলাদার, পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক সাইদুর রহমান অর্পন, স্বেচ্ছা সেবকলীগের সভাপতি নিপু জমাদ্দার, সাধারন সম্পাদক উজ্জল হাওলাদার, ছাত্রলীগের আহ্বায়ক রেদোয়ান শিকদার রিচান
সহ আওয়ামীলীগ ও সকল অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও জাতীয় পার্টি জেপি নেতৃবৃন্দ।
এবং জাতীর বীর সন্তান মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ ও ভান্ডারিয়ার সর্বস্তরের জনগন।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com