Breaking News
Home / Breaking News / কবি শ্রী আশীষ মুখোপাধ্যায় এর কবিতা “বেলা শেষে পথে যেতে “

কবি শ্রী আশীষ মুখোপাধ্যায় এর কবিতা “বেলা শেষে পথে যেতে “

বেলা শেষে পথে যেতে
শ্রী আশীষ মুখোপাধ্যায়।
১৪-১২-২১

সেই নদী তীর আজ ভেঙে চিড়
ডাকে আজো হাত তুলে
বলে ইশারায় আয় ফিরে আয়
কেন গেলি আজ ভুলে ?
পিছনে তাকায় বুঝি আচমকাই
নেই কারো পদধ্বনি ,
মনে ভাবি সেকি , অশরীরী নাকি !
কান পেতে পূনঃ শুনি ।
ছিলাম একেলা , চলে যায় বেলা
বসে পড়ি বালু তীরে ,
পুরানো খাতায় পাতা খুলে যায়
স্মৃতি আসে জং ধরে।
বেলা ঘড়ি কাঁটা থেমে থেমে হাঁটা
বিকারে ধরলো কিছু ,
যেন পাশাপাশি আজো বসে আছি
অনাদি কালের পিছু ।
সেই নদী তীর সাদা কাশে ভিড়
তুলে আনি প্রতিদিন ,
তোমার খোঁপায় খুলে দিয়ে সাজাই
পাগলের হাতে বীন।
হাসিতে লুটাতে জল ছুঁড়ে দিতে
রাগ অনুরাগ খেলা ,
মান অভিমান, স্রোতস্বিনী গান
মন ভরানোর মেলা !
মনে হয়, যদি হলে তুমি নদী
আমি এক বালুচর ,
আজকে একেলা কেটে গেল বেলা
রয়েছে বিষাদ ঘর।
পাগলের মতো বালি অবিরত
তুলি আর ফেলি দূরে ,
একটি কাগজ গুলোয় মগজ
হাওয়াতেই এলো উড়ে।
ছোট ছোট লেখা মনে হলো , দেখা
চিনি আমি তাকে চিনি ,
প্রেমের বলাকা মেলেছে যে পাখা
রেখেছে সঞ্জীবনী !
পাশে চারিধার জাগে হাহাকার ,
কাশবনে শৃগাল ডাকে ,
অশ্রু কয় ফোঁটা নিঃস্ব সময়টা
স্মৃতির ঘরেতে ধুঁকে ।
বহুদিন হলো বেলা বেড়ে গেল
দিগন্তের কাছাকাছি,
হঠাৎ আজিকে ডেকেছি ফাঁকিকে
কেন যেন মিছেমিছি !
হঠাৎই এলাম যৌবনের ধাম
অতীত ছিল না মনে ,
ভেঙে পড়া তীরে ক্ষয়ী বন্দরে
কে যেন আনলো টেনে।
চমকে দেখছি জড়তা মাখছি
মন জুড়ে মরুখেলা ,
যক্ষ হই নিকো ধন রাখিনি তো ,
জীবনেই শেষ বেলা।
সচল লহরী নদী ও প্রহরী
শুধু আমাতে আমি নেই ,
এক দমকায় গেল ধমকায়
অতীত সে অতীতেই।
ত্বরা উঠে বসি বিস্বাদ হাসি
ও নদী, রয়েছো আজো ,
ওহে ব্যর্থ বীনা প্রেম ভুলিও না
বাজো একা তুমি বাজো !!

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com