Breaking News
Home / Breaking News / কবি মোস্তাক আহম্মেদ এর কবিতা ” সোমলতা “

কবি মোস্তাক আহম্মেদ এর কবিতা ” সোমলতা “

কবিতা- “ সোমলতা ”
মোস্তাক আহম্মেদ
তারিখ-১০/১২/২১ন ইং ।-

সোমলতা, তোমার আধত চোখে দেখি
জ্বলে;লক্ষ তারার মহারশ্মির জ্যোতি
যারা হলো,প্রাণজ্যোতির দীপ্তময় অণুভা
হয়ে যারা মোর প্রাণ মাঝে ছড়ায়;
দৃপ্তময় বাসনা !
জানো কী তুমি তা হৃদয়ের পুরী হতে ? ।।

তোমার দীপ্তময় হাস্যেজ্জল মুখামৃত বদন
যা দেখতে যেন রসালো
কমলার কোয়ার মত ! ও বড় মধুমাখা !
যারা অমৃত রসে রসে,কত না বড় মিষ্টময়
সে হতে ভেসে আসা খুশবুর সুবাসিত বাহার
মোর দেহ ও মনকে বড় বেশি দেয় প্রফুল্লতা ।।

ওই যে তোমার কমলরূপ সেই দেখা পদ্মলোচন
যার পাপড়িগুলো দেখতে যেন উড়ন্ত সসার !
তারা নীলকমল রূপ হয়ে
যায় উড়ে ওই নীলাকাশ মাঝে
ও প্রাণে ছড়িয়ে দেয় তারা নীলাভ দ্যূতির আভা !
যে প্রভা মনকে ঢেকে দেয়
নীলাভ প্রেমের উঞ্চময় চাদরে চাদরে ! ।।

তোমার চোখ পাপড়িগুলো যখন পবন দোলে
সসারের মতো হৃদ-নীলে তারা মারে উকি !
তারা নীলগগনে দ্যাখে তারকার মেলা !
যেথা তুমি হলে,তারই-এক নীলধ্রুবজ্যোতি
আমি যে তারই পানে,রই শুধু চেয়ে চেয়ে ।।

সোমলতাও মন উজার করে,সেথা যায় মিশে
তার আঁখির চাহনিতে মোর মন যায় গলে !
আর অধরোষ্ঠ হতে মুখমদিরার সে মিষ্ট খুশবু
সেসব পড়ে যেন খসে আর খসে !
বড় পুলক জাগে, নিস্প্রোভ প্রভাহীন হৃদচিত্তে ।।

সুস্বরবতী পড়ে চন্দ্রহার ও পড়ে করশাখায় অঙ্গুষ্ঠী
সেথা কিরণমালির প্রভারশ্মিতে তারা জ্বলে !
আর আপন বিলাসে রচিত করে কাব্যচন্দ্রিকা
যারা ভুবনমোহনী তাজের রূপতার মহাকাব্য !
যার কাব্যরস থিতিয়ে পড়বে
মোর মনোকুঞ্জের গুলবাগে ।।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com