Breaking News
Home / Breaking News / কবি শ্যামল ব্যানার্জীর কবিতা”চলো চলে যাই”

কবি শ্যামল ব্যানার্জীর কবিতা”চলো চলে যাই”

কবিতা — চলো চলে যাই
শ্যামল ব্যানার্জী
১০/১২/২০২১

সেই কবে একদিন, মিছিলের শেষ মুখ,
ভগ্নাংশ রেখে গেছে,
যে পথ দাঁড়িয়ে এখন, অধিকারহীন নির্লজ্জ বেহায়ার মতো,
সে পথ ব্রাত্য আজ , অবজ্ঞার অনৈতিক চক্র ব্যূহ যেন।
দেউলিয়া এ নগর, বাসিন্দা যত অদেখা প্রতিশ্রুতির,
গৌরচন্দ্রিকায় জাবর কেটে যায়…
সিঁধ কাটা রাত প্রতিদিন আসে ঘুমের ভেতর
মৃতের শহরে এক, জ্বেলে মোমবাতি ।
চলো যাই..
চলো.. চলে যাই, এ মৃতের শহর ছেড়ে,
দূরে বহুদূরে অন্য কোথাও,
কবরে অশান্ত আত্মারা সব কানাকানি করে,
জীবিত যে ক জন আছে,
তারাও হতাশ আজ কবন্ধ মিছিলে।
মিছিলে আজ নেই কোনো মুখ,
মুখ সব মুখোশের আড়ালে আততায়ী,
মুখ ঢাকে বেনিয়ার ক্রুর হাসি।
তার চেয়ে চলো যাই এ প্রতারক শহর ছেড়ে
অন্য কোথাও , অন্য কোনোখানে।
এখানে মানুষ রোজ মৌনব্রত রাখে অধর্ম স্নানে,
নীরবতা ভাঙেনা কেউ,
বিচ্ছিন্ন দ্বীপের বাসিন্দা যেনো সব একা,
বলবে কার সাথে কথা ?
তার চেয়ে চলো, চলে যাই অন্য কোথাও, অন্য কোনোখানে।
“” যেতে পারি কিন্তু কেন যাবো “”… কবি রুখে দাঁড়ালেন অন্তরালে..
কবির রুক্ষ চাহনিতে সাহসিক প্রতিবাদ।
তাহলে…
চলো যাই, প্রস্তুত করি.. কুরুক্ষেত্র প’ড়ে আছে অনির্বান,
আসি দেখে, আসি ঘুরে, করি পরিমার্জিত,
আসি রেখে হোমাগ্নি শিখা,
হয়তো কোনো একদিন আসবে সাগ্নিক কোনো , একদিন কুরুক্ষেত্র জাগবে আবার।
আর একটা যুদ্ধ হবে সেদিন,
এ যুদ্ধ শুধুই একলব্যর, ধর্ম ব্যাধের,
ছিনিয়ে নেবার ঘাতকের হাত থেকে,
অধিকার বোধ।
দেখে যেতে হবে পালিয়ে নয়… সামনাসামনি,
মানুষের শেষ কথা।
জানো, আজ বড় দরকার ছিলো কবির সেই ছোট্ট ছেলেটিকে,
যে অবাক চোখে বলতে পারতো,
রাজা তোর কাপড় কই?

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com