Breaking News
Home / জাতীয় / শিরোনামঃ মধ্য রাতের দুঃস্বপ্ন

শিরোনামঃ মধ্য রাতের দুঃস্বপ্ন

শিরোনামঃ মধ্য রাতের দুঃস্বপ্ন
কলমেঃ সাংবাদিক এম. আর হারুন
————————————————
মধ্যরাতে শহরের ল্যাম্প পোষ্টের পাশে দাড়িয়ে একটি অষ্টাদর্শি নারী,
ক্ষুদার যন্ত্রণায় খদ্দরের খোঁজে,
কিছুক্ষন সময়ের লোভিত ব্যাক্তির পিপাসে মেটাতে
সুশ্রী সুন্দর সেজে অপেক্ষামান।

চাকুরির অভাবে এ কাজটা বেঁছে নিয়েছে নিজের অজান্তেই,
মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ে,
না পারে কারো কাছে হাত পেতে ভিক্ষা করতে
না পারে দিবালোকে অন্যকে ঠকাতে।

ক্যান্সারে আক্রান্ত বাবা, বয়স্ক মা ঘরে শুয়ে মৃত্যুর প্রহর গুনছে,
শিক্ষার হার মুটামুটি ভালো,
মামা খালু না থাকায় চাকিরী হচ্ছে না,
গার্মেন্টসে চাকুরী নিলেও হারাতে হয় সম্ভ্রম
মালিক, ম্যানেজার কিংবা সুপারভাইজার
রাতের অন্ধকারে বিছানায় আহবান জানায়,
নিজেকে সৎ রাখতে গিয়ে কেটে গেলো কয়েকটি বছর।
কোথায় চাুকরী নামক সোনার পাখিটি ধরা দেয়না,
শরীরের গঠন লোভনীয় বলে
সবাই তার সুন্দর চামড়াটাকে খাবলে খেতে চায়,
পোষাক আষাকে একটি ভদ্র মেয়ে বটে,
কিন্তু কি করা, মামা খালু আর ঘুষের অভাবে
কোথায় জুটেনি চাকুরী নামক সোনার হরিণ।

কোনো উপায়ন্তর না দেখে
নেমে পড়ে পুরুষ শাসিত রাতের লোভনীয় প্রহরী হয়ে,
প্রতি রাতে ৫শ’ কিংবা ১ হাজার টাকা ইনকাম করা হলেও, দালালরা তার তৃতীয়াংশ নিয়ে যায়,
আবাসিক হোটেল কিংবা ধনীর দুলালিদের
মদের আড্ডা খানায় রাত কাটে তার।

সকাল হলে বাড়ি ফেরা, বাবা মার ঔষধ নিতে বেগ পোহাতে হয় তাকে,
রান্না ঘরের গরম চুলোয় বিড়াল ঘুমাচ্ছে,
অভাবের তাড়নায় এ পথ বেছে নিলেও নেই প্রশান্তি।
রাত জাগা পাখিটি দিনের বেলায় স্বপ্ন দেখে,
কেউ এসে তার হাতটি ধরে বিয়ের আহবান জানাবে
অসুস্থ বাবা মার দায়িত্ব নিবে,
কিন্তু না দিনের স্বপ্ন জেগে ওঠলেই বিলীন হয়।

আবার সেই ল্যাম্পপোষ্টের পাশে দাড়িয়ে
আজ আর খদ্দের মিলেনি কলেজ পড়ুয়া মেয়েটির,
না খেয়ে আছে বাবা মা আর দশ বছরের ভাই
ফজরের আযান কানে আসতেই ফিরে চলা
আজ আর মিললোনা বাবা মার ঔষধের খরচ।
তারপরও অস্পরা মেয়েটি হাল ছাড়েনি।
বিধাতার কাছে একটাই তার চাওয়া
এ নির্লজ্জ পথ থেকে কবে ফিরে আসবে
নতুন জীবনে, নতুন পন্থায়।
২৫/০৭/২০২১,চাঁদপুর।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com