Breaking News
Home / Breaking News / লকডাউনের চরাঞ্চলে কর্মহীন মানুষের দুঃখ-দুর্দশা,ত্রাণ না পাওয়ায় অনাহারে দিন কাটাচ্ছে

লকডাউনের চরাঞ্চলে কর্মহীন মানুষের দুঃখ-দুর্দশা,ত্রাণ না পাওয়ায় অনাহারে দিন কাটাচ্ছে

শাহরিয়ার খানঃ
লকডাউনের চরাঞ্চলে অসহায় কর্মহীন হতদরিদ্র হাজারো মানুষ মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে। সরকারি ত্রাণ না পেয়ে অনাহারে জীবন যাপন করছে।, নদীর একুল ভাঙ্গে ওকুল গড়ে তার সাথে যুদ্ধ করে চলছে চরাঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রা। লকডাউন এর কারণে অসহায় খেটে খাওয়া মানুষ পরিবার স্বজনদের নিয়ে খুব কষ্টে রয়েছে। সোমবার ১৪ নং রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড গোয়ালনগর চড়ে গিয়ে দেখা যায়, করোনাভাইরাস কারণে সরকার ঘোষিত লকডাউনে কর্মহীন অসহায় হতদরিদ্র মানুষ খুব কষ্টে রয়েছে। চাঁদপুরের সবগুলো ইউনিয়নের লোকজন সরকারি ত্রাণ পেলেও রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের অসহায় অনেক মানুষ কোন ত্রাণ পাইনি। এর কারণ হচ্ছে রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন অধিকাংশ ভেঙে যাওয়ায় নতুন বেশ কয়েকটি চর জেগে উঠায় সেখানে লোকজন ছড়িয়ে-ছিটিয়ে বসবাস করছে। এই ইউনিয়নে সরকারি ত্রাণ পেলেও চেয়ারম্যান ও মেম্বাররা তা সঠিকভাবে বন্টন না করার কারণে হাজারো অসহায় হতদরিদ্র মানুষ সরকারি ত্রাণ থেকে বঞ্চিত রয়েছে। এই অসহায় মানুষের পাশে নেই কেউ। সরকারি ত্রাণ সঠিকভাবে পেলে এই লকডাউনে জীবন বাঁচাতে পারবে।

হতদরিদ্র মানুষ্যা অভিযোগ করে বলেন, শহরের মানুষ সরকারি ত্রাণ পেলেও চরের মানুষের কথা কেউই ভাবেনি। এছাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মেম্বাররা তাদের কোনো খোঁজ-খবরও নেয় না। তারা নিজেদের পকেট ভারি করতে ব্যর্থ হয়েছে। রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন বেশ কয়েকবার নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেল আবারও নতুন চড়ে ভাঙ্গার সম্ভাবনা রয়েছে। প্রতিদিন ভাঙ্গন আতঙ্কে তারা দিন কাটাচ্ছে। লকডাউনে কর্ম না থাকায় চরাঞ্চলের মানুষ খুব কষ্টে অনাহারে দিন কাটাচ্ছে সরকারি বরাদ্দ সঠিকভাবে বন্টন করা হলে এই চরাঞ্চলের মানুষ কষ্ট দূর হবে।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com