Breaking News
Home / Breaking News / পদ্মায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ ৫ ডাকাত আটক

পদ্মায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ ৫ ডাকাত আটক

মোহাম্মদ সিন্টুঃ
পদ্মা নদীতে স্পীডবোট যোগে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ১ টি স্পীডবোট ২টি দেশীয় তৈরী পাইপগান, ৭ রাউন্ড তাজা কার্তুজ, ৮টি রামদা বিভিন্ন মডেলের ২০টি মোবাইল সেট, ১০১টি দা, ১টি ড্রাইভার, ১টি শাবল, ৫টি তেলের খালি ড্রাম, ১০ লিটার পেট্রোলসহ ৫ জন দুর্ধর্ষ নৌ ডাকাত গ্রেফতার করেছেন চাঁদপুর নৌ পুলিশ।

১২ আগস্ট সকাল ১১টায় চাঁদপুর নৌ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন
গত ১১ আগস্ট বিকাল সাড়ে ৩ টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পদ্মা নদীতে ১২/১৩ জন দুর্ধর্ষ নৌ ডাকাত স্পীডবোট যোগে বিভিন্ন নৌযানে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে।

পুলিশ সুপার বলেন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নৌ পুলিশ, কন্ট্রোল রুমকে ডাকাতির সংবাদটি অবহিত করে। নৌ পুলিশ, কন্ট্রোল রুম তাৎক্ষণিকভাবে আশে পাশের পুলিশ ইউনিট সমূহকে সতর্ক করেন। আমার দিক-নির্দেশনা মোতাবেক নৌ পুলিশের অভিযানিক দল নৌ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ বেলায়েত হোসেন শিকদার, এস আই (নিঃ) জহিরুল হক, এ এস আই (নিঃ) মোঃ শহিদুল ইসলাম, কনস্টেবল (৫৪৮) মোঃ আবুল বাসার, (১২৩১) মোঃ রেজাউল ইসলাম, (৯৬৬) মেজবাহ উদ্দিন, (৪৩৭) এস এম ইসরাফিল হোসেন ঘটনাস্থলে পৌঁছলে স্পীডবোটে থাকা ১২/১৩ জন নৌ ডাকাতকে দেখতে পায়। তাৎক্ষণিক অভিযানিক দল স্পীডবোটে থাকা নৌ ডাকাতদের ধরার জন্য ধাওয়া করেন। পুলিশের ধাওয়ায় নৌ ডাকাত দল স্পীডবোট হতে পুলিশ কে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়লে নৌ পুলিশ আত্মরক্ষার্থে কয়েক রাউন্ড শটগান হতে ফাঁকা ফায়ার করেন। তখন ডাকাত দল পদ্মা নদীর মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার ডহুরী খালের দিকে স্পীডবোট নিয়ে দ্রুত গতিতে পালাতে থাকে, ঐসময় মাঝিরঘাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির আভিযানিক দলও নিজেদের স্পীডবোট নিয়ে ডাকাতদের কে ধাওয়া করতে থাকে । এক পর্যায়ে ডাকাত দল মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার গাঁওদিয়া বাজার সংলগ্ন নদীর পাড়ে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত স্পীডবোটটি রেখে লাফিয়ে তীরে নেমে দৌড়িয়ে পার্শ্ববর্তী পাটক্ষেতে আত্মগোপন করে। তাৎক্ষণিক মাঝিরঘাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির অফিসার ও ফোর্সসহ বিভিন্ন ইউনিটের পুলিশ সদস্যগণ অভিযানে অংশ নিয়ে মাঝিরঘাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির দল পদ্মা নদীর তীরবর্তী পাটক্ষেতে তল্লাশি করে সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় প্রথমে মোঃ আক্তার হোসেন (৩০) পিতা-মৃত সেরু মাঝি, গ্রাম- ভাসানচর, মোঃ ইকবাল মুন্সি সুমন (২৮) পিতা-মোঃ ইলিয়াস মুন্সি, গ্রাম-কান্দিপাড়া, উভয় থানা-পদ্মা উত্তর, জেলা-মুন্সিগন্জ এই দুই জন ডাকাতকে গ্রেফতার করেন।

পরে গ্রেফতারকৃত আসামীদের তথ্য এবং দেখানো মতে পুলিশ সদস্য দল সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টা হতে পদ্মা নদীর তীরবর্তী পাটক্ষেত, ডোবা-নালার কচুরিপানায় চিরুনী অভিযান শুরু করেন। তল্লাশি কালে পালগাঁও গ্রাম সংলগ্ন পাটক্ষেত হতে মোঃ আবুল বাশার (২২) পিতাঃ- মোঃ গিয়াস উদ্দিন বেপারী, গ্রাম- কালিরচর, থানা- সদর, জেলা- মুন্সিগঞ্জ, ১ টি পাইপগান ও ৪ রাউন্ড সীসা কার্তুজসহ আরো ১ জনকে গ্রেফতার করেন। ভোর ৪:৩০ ঘটিকায় পশ্চিম পালগাঁও সংলগ্ন ধইঞ্চা ক্ষেত হতে মোঃ শাকিল দেওয়ান (২১) পিতা- মোঃ মোখলেছ দেওয়ান, গ্রাম- সোমা ঢালিকান্দি, থানা এবং জেলা মুন্সিগঞ্জের আরও ১ জনকে , ১ টি পাইপগান ৩ রাউন্ড সীসা কার্তুজ সহ গ্রেফতার করেন। ভোর ৫ টায় পূর্ব পালগাঁও সংলগ্ন ডোবা হতে মোঃ ইয়ামিন (১৯) নামে পিতা- মোঃ ইয়াছিন, গ্রাম পিড়িঙ্গি বাজার কুটিপাড়া, পোঃ পঞ্চসার, থানা- সদর, জেলা মুন্সিগঞ্জের আরও ১ জনকে সহ সর্বমোট ৫ জন ডাকাত গ্রেফতার করেন।

উক্ত অভিযানটি গত ১১ আগস্ট বিকাল সাড়ে ৩ টা হতে ১২ আগস্ট ভোর সাড়ে ৫ টা পর্যন্ত পরিচালিত হয়।
নৌ পুলিশ সুপার প্রেস ব্রিফিং এ সুপার জানান, গ্রেফতারকৃত নৌ ডাকাতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com