Breaking News
Home / Breaking News / নিষেধাজ্ঞার প্রথম দিন : ভোলায় ১৫ জেলে আটক

নিষেধাজ্ঞার প্রথম দিন : ভোলায় ১৫ জেলে আটক

মো কামরুল হোসেন সুমন,ভোলা প্রতিনিধিঃ
ভোলায় ইলিশসহ সব ধরনের মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে অভয়াশ্রমে সরকারি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে মাছ শিকারে দায়ে ১৫ জন জেলেকে আটক করেছে মৎস্য বিভাগ। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা হয়েছে তাদের। মঙ্গলবার (১ মার্চ) ভোরে ভোলা সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. জামাল হোসাইনের নেতৃত্বে ভোলার মেঘনা নদীতে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ৫ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল ও ১৫ কেজি মাছ জব্দ করা হয়েছে।
আটককৃত জেলেরা হলেন- জাহাঙ্গীর আলম (৪০), মো. আফসার (৩৫), মো. দুলাল (৪২), সরিফ (৩৪), আব্দুল মান্নান (৩৯), মো. লিটন (২৮), মো. রাসেল (২৬), মো. আমির হোসেন (৩৭), মো.ফয়সাল (৩৫) মো.সুজন (২৩) মো. আসরাফ আলী (৪৩), মো.আব্বাস (৩৬), মারুফ (১২), ইয়ামিন (১১) ও জাকির হোসেন (১৪)।
পরে সহকারী কমিশার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সালেহ আহমেদ ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ১২ জেলেকে নগদ ৫ হাজার টাকা করে ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এছাড়া ৩ জেলে নাবালক হওয়ার তাদের সচেতন করে ছেড়ে দেয়া হয়। পাশাপাশি জব্দকৃত অবৈধ কারেন্ট জাল আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হয় এবং জব্দকৃত মাছ স্থানীয় মাদরাসায় বিতরণ করা হয়েছে।

এসময় সদর উপজেলা মৎস্য অফিসার মো. জামাল হোসাইন বলেন, ইলিশসহ সব ধরনের মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে দেশের ছয়টি অভয়াশ্রমে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকারের দায়ে আজ প্রথম দিনে মেঘনা নদী থেকে ১৫ জেলেসহ ৫ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল ও ১৫ কেজি মাছ জব্দ করা হয়েছে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের জরিমানা করা হয়েছে। ইলিশসহ সব ধরনের মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে মেঘনা-তেতুলীয়া নদীতে আমাদের এই অভিযান চলমান থাকবে।

উল্লেখ, ১ মার্চ থেকে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত টানা দুই মাস নদীতে সব ধরনের মাছ শিকার নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এই কর্মসূচির আওতায় ভোলা সদর উপজেলার ইলিশা পয়েন্ট থেকে মনপুরা উপজেলার চর পিয়াল পর্যন্ত মেঘনা নদীর ৯০ কিলোমিটার ও তেঁতুলিয়া নদীর ভোলা সদর উপজেলার চর ভেদুরিয়া থেকে পটুয়াখালীর জেলার চর রুস্তম পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার এলাকায় সব প্রকার মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকবে।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com