Breaking News
Home / Breaking News / চাঁদপুরে ফেলে রাখা অসুস্থ পাগল মহিলাকে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর

চাঁদপুরে ফেলে রাখা অসুস্থ পাগল মহিলাকে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর

শাহরিয়ার খানঃ
চাঁদপুরে অসুস্থ পাগল প্রতিবন্ধী বেবি আক্তার নামে এক মহিলাকে শহীদ জাবেদ মুক্ত স্কাউট দলের সদস্যরা উদ্ধার করে অ্যাম্বুলেন্স যোগে ঢাকা মগবাজার নিয়ে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন।
বৃহস্পতিবার দুপুরে চাঁদপুর শহরের পুরান বাজার মোমেনবাগ আবাসিক এলাকায় এক প্রবাসীর বাড়ির নিচ তলা থেকে ফেলে যাওয়া প্রতিবন্ধী পাগল বেবী আক্তারকে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়।
শহীদ জাবেদ মুক্ত স্কাউট দলের সভাপতি রফিকুল্লার নিজ অর্থায়নে অ্যাম্বুলেন্স ভাড়া করে স্কাউট দলের টিম লিডার সাইফুল তন্ময় ও এই প্রতিবেদক শাহরিয়ার খান কৌশিক মানবতার সেবায় নিজেদের বিলিয়ে দিয়ে অসুস্থ পাগল মহিলাকে নিয়ে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন।
অসুস্থ প্রতিবন্ধী পাগল বেবী আক্তারের বড় বোন পেয়ারা বেগম পুরান বাজার মোমেনবাগ আবাসিক এলাকায় এক প্রবাসীর বাড়ির নিচ তলা ভাড়া নিয়ে থাকতেন। গেল তিন মাস পূর্বে পেয়ারা বেগম গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে শহিদ জাবেদ মুক্ত স্কাউট দলের সদস্যরা খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি করায়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকায় এক প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে পিত্তথলির অপারেশন করার পর হঠাৎ স্ট্রোক করে প্যারালাইসিস হয়ে পরে। দীর্ঘদিন যাবৎ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার কারণে তার ছোট বোন প্রতিবন্ধী পাগল বেবি আক্তার বাড়িতে একা পরে থেকে অসুস্থ হয়ে পড়ে।
মানবতার সেবায় নিয়োজিত শহীদ জাবের মুক্ত স্কাউট দলের সভাপতি মুক্তিযুদ্ধা রফিকুল্লাহ খবর পেয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়।
প্রতিদিন তার লোকজন দিয়ে পাগল প্রতিবন্ধী বেবী আক্তার এর পরিচর্যা খাওয়া-দাওয়া ও বাসা ভাড়া বহন করে। প্রতিবন্ধি পাগল বেবী আক্তার এর বড় দুই বোন ও আপন ভাই ঢাকায় থাকলেও তাদের কোন খবর নেয় না।
অবশেষে পুরানবাজার পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই মোরশেদ এর নজরে আসলে বিষয়টি ঢাকায় অবস্থানরত তাদের পরিবারের সাথে কথা বলে পাগল প্রতিবন্ধী বেবী আক্তারকে তাদের জিম্মায় নিয়ে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করে। কিন্তু পুলিশের কথা না শুনে তালবাহানা শুরু করলে অবশেষে সহিদ জাবেদ মুক্ত স্কাউট দল এগিয়ে এসে নিজেদের অর্থায়নে এম্বুলেন্স যোগে প্রতিবন্ধী বেবি আক্তারকে ঢাকা মগবাজার ওয়ারলেস রেলগেট সংলগ্ন বেপারী পাড়া ছায়ানীড় বাসার চতুর্থ তলায় অবস্থানরত তার বড় বোন খুকি বেগমের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
এসময় খুকি বেগম তার আপন ছোট বোন প্রতিবন্ধী পাগল খুকী আক্তারের দায়িত্ব নিতে অপারগতা স্বীকার করেন। এ সময় বাড়ির দারোয়ান ও প্রতিবেশীদের চাপে পড়ে শেষ পর্যায়ে তার দায়িত্ব নেন।
এসময় খুকি বেগম বলেন, এক ভাই ৪ বোনের মধ্যে প্রতিবন্ধী বেবী আক্তার সবার ছোট।
বাবা মা মারা যাওয়ার পর ভাই বোনের দায়িত্ব না নেওয়ায় বড় বোন পেয়ারা বেগম প্রতিবন্ধী পাগল বেবি আক্তার কে চাঁদপুরে নিয়ে বাসা ভাড়া করে থাকতেন। তিনি অসুস্থ হয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ হাসপাতালে ভর্তি থাকায় প্রতিবন্ধী পাগল বোনের কেউ খোঁজ খবর নেয় না। বড় ভাই লিমন সকলের সম্পদ বিক্রি করে টাকা আত্মসাৎ করে পালিয়েছে। পরের সংসার করছি বিধায় প্রতিবন্ধী পাগল বোনকে রাখা সম্ভব নয়। এখন তাকে বৃদ্ধাশ্রমে নিয়ে ফেলে রাখা ছাড়া কিছুই করার নেই।

এদিকে এই নিষ্ঠুর পৃথিবীতে কেউ কারো নয় আপন বোনের দায়-দায়িত্ব নিতে রাজি না হওয়ায় এই পাষাণ পরিবারের প্রতি তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জ্ঞাপন করেছেন স্থানীয়রা।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com