Breaking News
Home / Breaking News / কচুয়ায় দেবরের আঘাতে গৃহবধূ রক্তাক্ত জখম!! থানায় অভিযোগের পর সালিশ বৈঠকের আয়োজন

কচুয়ায় দেবরের আঘাতে গৃহবধূ রক্তাক্ত জখম!! থানায় অভিযোগের পর সালিশ বৈঠকের আয়োজন

মফিজুল ইসলাম বাবুল,কচুয়াঃ
কচুয়া উপজেলার কড়ইয়া ইউনিয়নের নলুয়া বাজার সংলগ্ন দৌলতপুর পাটওয়ারী বাড়ির মৃত শফিকুর রহমানের ছেলে প্রবাসী সোহেল পাটওয়ারীর স্ত্রী মাহমুদা (৩০) কে দেবর রবীনের মারধরের আঘাতে রক্তাক্ত জখম হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। আহত মাহমুদা জানান, শনিবার (১২জুলাই) সন্ধা রাতে আমার ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ুয়া ছেলে সিয়ামের সাথে পারিবারিক কলহের জের ধরে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দেবর রবীন তাকে মারধর করলে আমি প্রতিবাদ করায় সে আমাকেও লাঠি এবং বটি দাও দিয়ে কোপালে আঘাত করলে রক্তাক্ত জখমে আহত হই। রাতেই আমার পিত্রালয়ের লোকজন খবর পেয়ে ছুটে এসে আমাকে এবং আমার ছেলে সিয়ামকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। দেবর রবীন পরিবারিক কলহের জের ধরে ন্বিকার করে বলেন, কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে হাতাহাতি হলে তারা মা-ছেলে আমাকেও মারধার করে এবং হাতাহাতির এক পর্যায়ে আমি ঘরে থাকা বাঁশের পাতলা কাইম দিয়ে মাহমুদা কে একটি আঘাত করি । তবে এই আঘাতে রক্তাক্ত জখমের কোন ঘটনা আমি ঘটাই নাই। এ ব্যাপারে মহমুদার পিতা একই উপজেলার পাশাপাশি গোহট উত্তর ইউনিয়নের খিলা গ্রামের অধিবাসী জয়নাল আবদিন বাদী হয়ে রবীন পাটওয়ারীকে প্রধান বিবাদী করে ৪জনকে অভিযুক্ত করে কচুয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করে। বিশ্বস্ত সুত্র জানান, কচুয়া থানার এসআই মকবুল হোসেন অভিযোগের তদন্তভার পেয়ে সোমবার (১৩জুলাই) দুপুরে সরজিমিনে গিয়ে রবীনকে আটক করে থানায় নিয়ে আশার পর কড়ইয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জহিরুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে তাকে ছেড়ে নিয়ে যায়। এ নিয়ে মঙ্গলবার (১৪জুলাই) বিকেল ৩টায় সালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, আহত গৃহবধূর পিত্রালয় গ্রামের বিশিষ্ঠ সমাজ সেবক আবু হাজী।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com