Breaking News
Home / Breaking News / চাঁদপুরে দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ, প্রতিবাদ করায় পিতাসহ তিনজনকে কুপিয়ে জখম

চাঁদপুরে দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ, প্রতিবাদ করায় পিতাসহ তিনজনকে কুপিয়ে জখম

ষ্টাফ রির্পোটারঃ
চাঁদপুর সদর উপজেলার ৩ নং কল্যাণপুর ইউনিয়নে আমানুল্লাহপুর গ্রামে দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেছে আলী আহমেদ নামে এক লম্পট।
শিশু ধর্ষণের ঘটনাটি এলাকার দালালচক্ররা মেয়ের বাবাকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে সমঝোতা করলেও এর কিছুদিন পরেই পুনরায় ওই লম্পট শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এই ঘটনা প্রতিবাদ করলে শিশুর বাবা শরীফ হাজীকে কুপিয়ে জখম জখম করেছে ধর্ষণকারী আলী আহমেদ ও তার ছেলে মকবুল হোসেন, সাদ্দাম হোসেনসহ কয়েকজন বখাটে। এ সময় গুরুতর আহত শরিফ হাজীকে বাঁচাতে গেলে তার মা হাফিজা বেগম ও বোন ফাহিমা আক্তারকে কুপিয়ে জখম করেছে এবং লাঞ্ছিত করে।
এই ঘটনায় শরীফ হাজী বাদী হয়ে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে চাঁদপুর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
ধর্ষণকারী আলী আহাম্মেদ ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে উল্টো শিশু পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে চাঁদপুর মডেল থানার এএসআই হাসান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে তদন্ত করেন।
ধর্ষিতা শিশুর বাবা শরীফ হাজী জানান, গত ৬ মাস পূর্বে লম্পট আলী আহমেদ আমার ১০ বছরের শিশু সন্তানকে দিনে দুপুরে বাড়ির পাশে বিলে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় আশেপাশের মহিলারা দেখতে পেয়ে বিষয়টি জানালে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে শিশুকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেই ঘটনায় এলাকার আশিকাটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রাজ্জাক, আলফা মেম্বার ও আমির হাজী ঘটনাটি সমঝোতা করার জন্য সালিশি বৈঠকে বসেন। সেই ঘটনা লম্পট আলী আহমেদকে এক লক্ষ টাকা জরিমানা করেন ও এই এলাকা যেন কোনদিন না আসে সেই মর্মে একটি লিখিত স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেন।
ছয় মাস যেতে না যেতেই লম্পট আলী আহমেদ বাড়িতে এসে আবারো আমার মেয়েকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। এই ঘটনা জিজ্ঞাসাবাদ করতে গেলে আলী আহমদ সহ তার ছেলেরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে মা, বোন সহ তিন জনকে কুপিয়ে জখম করে। এই লম্পট ধর্ষণকারীর বিচার দাবি করছি। ধর্ষণের ঘটনাটি পূর্বে জোরপূর্বক ভাবে চাপ প্রয়োগ করে এলাকায় সমঝোতা করার কারণে পুনরায় আবারো লম্পট আলী আহাম্মেদ এলাকায় এসে ধর্ষণের চেষ্টা করে। সে এর পূর্বে বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটিয়েছে তার ছেলেরা ক্ষমতাশালী হওয়ায় ভয় ভীতি প্রদর্শন করে সব ঘটনা ধামাচাপা দিয়েছে।
এদিকে অভিযুক্ত আলি আহাম্মেদ জানায়, পূর্বে একটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে তা সত্য। সে সময় আমি ভুল করেছি। ৬ মাস বাড়ির বাইরে থেকেছি অবশেষে করোনা ভাইরাস কারণে বাড়িতে এসেছি। ধর্ষণের ঘটনা জিজ্ঞাসাবাদ করায় উভয়ের মাঝে হাতাহাতি হয়েছে। এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ করা হলে পুলিশ এসে তদন্ত করেছে।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com