Home / Breaking News / ফরিদগঞ্জে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ\ ফরিদগঞ্জের যুবলীগ নেতারা হাজিরা দিতে গিয়ে হামলার শিকার \ স্বরাষ্ট্র ও আইনমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

ফরিদগঞ্জে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ\ ফরিদগঞ্জের যুবলীগ নেতারা হাজিরা দিতে গিয়ে হামলার শিকার \ স্বরাষ্ট্র ও আইনমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি :
চাঁদপুর আদালতে হাজিরা দিতে যেয়ে বেদম পিটুনি ও হামলার শিকার হয়েছেন ফরিদগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের নেতারা। এব্যাপারে বৃহষ্পতিবার রাতে সংবাদ সম্মেলন করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।
চাঁদপুর-৪ ফরিদগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য মুহম্মদ শফিকুর রহমানের অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা যুব লীগের সিনিয়র যুগ্মআহŸায়ক হেলাল উদ্দিন আহমেদ লিখিত বক্তব্যে জানান, ‘উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল খায়ের পাটওয়ারীর দায়েরকৃত মামলায় তিনিসহ উপজেলা যুব লীগের আহŸায়ক আবু সুফিয়ানসহ ৪৮জন নেতাকর্মী বৃহষ্পতিবার দুপুরে চাঁদপুর আদালতে হাজিরা দিয়ে বের হয়। এসময় চাঁদপুরের একজন মন্ত্রীর মদদ পুষ্ট ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সন্ত্রাসী বাহিনী আমাদের উপর স্বসস্ত্র হামলা চালায়। এতে তিনি নিজেসহ আমাদের অন্তত যুব লীগ আহŸায়ক আবু সুফিয়ান, আলাউদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল আজিজ, ছাত্র লীগ নেতা কামরুল, নেওয়াজসহ ১০/১২ জন নেতাকর্মী মারাত্মক আহত হয়। পরে কোর্টে কর্মরত পুলিশের সহায়তায় ঘটনাস্থল থেকে বের হয়ে ফরিদগঞ্জে চলে আসেন তারা। পরে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা নেয়’।
এসময়ে তিনি বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে কি পুরো জেলা প্রশাসন জিম্মি। বারংবার কেন আদালতে হাজিরা দিতে গিয়ে আমরা হামলার শিকার হচ্ছি। আমরা এই ঘটনা রোধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী, আইনমন্ত্রী, জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ এবং বিচার বিভাগের কাছে ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানাই। তিনি আরো বলেন, আমাদের এমপি উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। কিন্তু চাঁদপুরের একজন মন্ত্রীর দাপট দেখিয়ে কিভাবে উপজেলা চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম রোমান উপজেলা আওয়ামী লীগ ধ্বংস করার প্রচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন। তা দেখবার বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে। আমরা উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুব লীগ, ছাত্র লীগ তথা চাঁদপুর সদরে একের এক নির্যাতনের হাত থেকে মুক্তি চাই। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হেলাল উদ্দিন জানান, চাঁদপুর জেলা ছাত্র লীগের বর্তমান সভাপতি জহির, সম্পাদক সাদ্দাম, সাবেক সভাপতি শেখ মো: মোতালেব, অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন, অ্যাড. কবির চৌধুরী, শিমুল, কাঁকন গাজী, রাসেল আখন্দ, রবিন পাটওয়ারীর নেতৃত্বে তাদের উপর হামলা হয়।
এদিকে অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, চাঁদপুরে ঘটনার পর ফরিদগঞ্জে সৃষ্ট ঘটনার পর মিছিল, হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় কে বা কারা জড়িত তা তিনি জানেন না। তবে আমাদের উপর হামলার ঘটনায় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা মিছিল সমাবেশ করতে পারে। তবে অন্য ঘটনাগুলোর বিষয়ে আমি জানি না। তবে ভাংচুরের ঘটনায় কেউ ক্ষতিগ্রস্থ হলে তাদের সহায়তা করবেন বলে আশ্বস্ত করেন।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com