Home / Breaking News / মতলব উত্তরে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল অস্রের মুখে প্রায় ৫০ ভরি স্বর্ণসহ ২০ লক্ষ টাকা লুট

মতলব উত্তরে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল অস্রের মুখে প্রায় ৫০ ভরি স্বর্ণসহ ২০ লক্ষ টাকা লুট

এইচ এম ফারুক ::
চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার কালিপুর বাজার ও কালির বাজারে সংঘবদ্ধ ডাকাতদল ১১টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ডাকাতি সংঘঠিত হয়। ১১টি দোকান থেকে প্রায় ৫০ ভরি স্বর্ণ ও ৯৫২ ভরি রোপাসহ ২০ লক্ষ টাকা লুটে নেয় ডাকাতদল। এ ঘটনায় প্রশান্ত দেবনাথ নামে এক দোকানদার আহত হয়েছে।

২২ জানুয়ার ভোর রাত এই ডাকাতির ঘটনা ঘটে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান। কালিপুর বাজারের মুক্তা স্বর্ণ শিল্পালয়, গিরীদারী স্বর্ণ শিল্পালয়, সৌরভ স্বর্ণ শিল্পালয়, দাদা-নাতি স্বর্ণ শিল্পালয়’সহ কালিবাজারের ৬টি স্বর্ণ শিল্পালয় ও মিলন ফার্মেসীতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

গিরীদারী স্বর্ণ শিল্পালয়ের স্বত্তাধিকারী প্রশান্ত দেবনাথ বলেন, ডাকাত দলের দু’জন পুলিশের পোষাক পরিহিত ছিল। তারা ২০ -২৫ জন, প্রত্যেকের হাতে অত্যাধুনিক অস্ত্র ছিল।
মতলব উত্তর থানার পুলিশ সূএে জানা যায়, ডাকাতির ঘটনার খবর পেয়ে টহলরত পুলিশ সদস্যরা তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।

ডাকাতির ঘটনায় চট্টগ্রামের অতিরিক্ত ডিআইজি ( অপারেশন এণ্ড ক্রাইম) এম. জাকির হোসেন খান পিপিএম, চাঁদপুর পুলিশ সুপার মো. মাহবুবুর রহমানসহ মতলব উওর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ এম জহিরুল হায়াত ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন।

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম (বার) বলেন, ঘটনার পর থেকেই পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান করছে। ১০টি স্বর্ণালংকারের দোকানে ডাকাতি হয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে ডাকাতরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে দোকানের তালা কেটে প্রবেশ করে। পুলিশ সম্পূর্ণ ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছে। কালির বাজারে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, আন্ত:জেলা ডাকাত দল বাজারের নৈশ্যপ্রহরী নুরুল ইসলামকে হাত-পা, মুখ বেঁধে ফেলে রাখে। একই ভাবে বাজারের নৈশ্যপ্রহরী আইয়ুব আলী ও আব্দুল ওহাবকেও বেঁধে রেখে বাজারের স্বর্ণকার পট্রির জীবন সরকার, কানাই বিশ্বাস, তপন বর্মণ ও সুনীল দাসের স্বর্ণের দোকানের তালা ভেঙ্গে লোহার সিন্দুক ভেঙ্গে ডাকাতি করে।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com