Breaking News
Home / Breaking News / লঞ্চ স্টাফদের নির্ধারিত পোষাক না থাকলে আইনী ব্যবস্থা

লঞ্চ স্টাফদের নির্ধারিত পোষাক না থাকলে আইনী ব্যবস্থা

ষ্টাফ রির্পোটার: চাঁদপুর-ঢাকা নৌ-রূটে আরামদায়ক ভ্রমন হচ্ছে লঞ্চে যাতায়াত। কিন্তু এ রূটের লঞ্চগুলোতে প্রায় যাত্রীদের অভিযোগ লঞ্চের কেবিনে দায়িত্বরত কেবিন বয়রা যাত্রীদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন। এ ক্ষেত্রে কেবিন বয়দের কোন নির্ধারিত পোষাক না থাকায় বুঝা যায় না সে একজন লঞ্চ স্টাফ। বিষয়টি নিয়ন্ত্রন করার জন্য কেবিন বয়দেরকে মালিক পক্ষ নির্ধারিত পোষাক দেয়ার জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছেন জেলা প্রশাসন।

বুধবার সকালে চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভায় সভাপতি অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আব্দুল্লাহ আল-মাহমুদ জামান বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা আগামী ৩ থেকে ৪ দিন সময় দিব এ বিষয়ে সুরাহা করার জন্য। আর এ বিষয়ে বন্দর ও পরিবহন কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে একটি চিঠি লঞ্চ মালিক পক্ষকে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করবেন। নির্দেশনা পাওয়ার পর যদি লঞ্চ মালিক পক্ষ তা বাস্তবায়ন না করে। তাহলে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযান করা হবে। এ সময় লঞ্চের কেবিন বয়দের নির্ধারিত ড্রেস না থাকলে তাদেরকে তুলে নিয়ে আসা হবে এবং আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সভায় আরো জানানো হয়, লঞ্চগুলোতে নিরাপত্তার জন্য আনসার নিয়োগ প্রয়োজন। সিসিটিভি ক্যামেরা থাকতে হবে। যেসব লঞ্চে সিসিটিভি ক্যামেরা নেই মালিক পক্ষ দ্রুত লাগানোর ব্যবস্থা গ্রহন করবে। তাহলে লঞ্চগুলোতে অপরাধমূলক কর্মকন্ড কমে আসবে।

এছাড়াও লঞ্চগুলোতে প্রতারণা করা হয় এমন অভিযোগ করেছেন, চাঁদপুরের সর্বজন শ্রদ্ধেয় স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সৈয়দা বদরুন্নাহার চৌধুরী। তিনি বলেন, লঞ্চের মধ্যে কেবিন কিংবা প্রথম শ্রেনীতে এসি আছে বলে ভাড়া নিলেও অনেক লঞ্চের এসিগুলোতে ত্রুটি আছে। এটি যাত্রীদের সাথে চরম প্রতারণা। মালিক পক্ষ এসব বিষয়ে অবশ্যই দৃষ্টি দিবেন।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com