Breaking News
Home / Breaking News / উৎকোচ না পেয়ে ডিম ভাঙ্গা সেই ওসির পরিণতি

উৎকোচ না পেয়ে ডিম ভাঙ্গা সেই ওসির পরিণতি

নাটোর প্রতিনিধিঃ
নাটোরের বনপাড়া হাইওয়ে পুলিশের ডিম ভাঙ্গার ঘটনায় এক সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটির তদন্ত মঙ্গলবার শেষ হয়েছে। তদন্তের শেষ দিন মঙ্গলবার বিকেলে ওই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলীম হোসেন সিকদারকে বগুড়া হাইওয়ে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে ক্লোজড (সংযুক্ত) করা হয়েছে।
একই সাথে দেলোয়ার হোসেন নামে নতুন ওসি যোগদান করেছেন। বগুড়া হাইওয়ে রেঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এরআগে এই ঘটনায় একজন সহকারী উপ-পরিদর্শক, একজন সহকারী ট্রাফিক উপ-পরিদর্শক, পুলিশ পিকআপের চালক ও তিনজন কনস্টবলসহ ৬ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। মঙ্গলবার তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত) মো. শহীদুল্লাহ তদন্ত শেষ করে রিপোর্ট পুলিশ হেড কোয়ার্টারে জমা দিয়েছেন। তদন্ত রিপোর্ট জমা দেয়ার পর হেড কোয়ার্টারের মিডিয়া সেল প্রেস ব্রিফিং করে এই বিষয়ে সাংবাদিকদের আপডেট তথ্য প্রদান করবে জানান।
এদিকে, গত বৃহস্পতিবার সকালে পিকআপ ভর্তি মুরগীর ডিম ভাঙ্গার পর তদন্ত কমিটির প্রধান শুক্রবার দুপুরে সরেজমিনে ঘটনাস্থল বনপাড়া-হাটিকুমুরুল মহাসড়কের বড়াইগ্রামের বনপাড়া আগ্রান সূতিরপাড় এলাকা পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজনের সাথে কথা বলেন। গত সোমবার ডিম বহনকারী পিকআপ থানায় টেনে নেওয়ার কাজে ব্যবহৃত রেকারের চালক পারভেজ হোসেন, হেলপার মোখলেস আলীকে তদন্ত কমিটি বগুড়ায় ডেকে নিয়ে যায় এবং সেখানে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।
প্রসঙ্গত বৃহস্পতিবার সকালে ৩৫ হাজার একশ’ ডিম নিয়ে সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ থেকে বনপাড়া হয়ে যশোরে যাচ্ছিল একটি পিকআপ। পথে বড়াইগ্রামের আগ্রান সূতিরপাড় এলাকায় পিকআপটির চাকা পাংচার হয়ে গেলে সেটি পাশের ফিডার রোডে নেমে যায়। খবর পেয়ে বনপাড়া হাইওয়ে পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে আসে। এ সময় পুলিশ সদস্যরা পিকআপ উদ্ধারের জন্য রেকার ভাড়াসহ ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবী করে। চালক এতে রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশ সদস্যরা পিকআপে ডিমের খাঁচি বাধার রশি চাকু দিয়ে কেটে দেয়। তাতে প্রায় তিন লাখ টাকার ডিম নষ্ট হয় বলে অভিযোগ করেন ডিম ব্যবসায়ী।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com