Breaking News
Home / Breaking News / প্রেমিকা ও স্ত্রী দুজনই অন্তঃসত্ত্বা, ঘরবাড়ি ছেড়ে পলাতক যুবক

প্রেমিকা ও স্ত্রী দুজনই অন্তঃসত্ত্বা, ঘরবাড়ি ছেড়ে পলাতক যুবক

ফরিদপুর প্রতিনিধি ঃ- বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরীর সঙ্গে দীর্ঘ তিনবছর ধরে প্রেম করছিলেন লুৎফুর তালুকদার (২৫) নামে এক যুবক। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কও হয়।
এরইমধ্যে বছরখানেক আগে প্রেমিকাকে না জানিয়ে মামাতো বোনকে বিয়ে করে ঘরে তুলে লম্পট লুৎফুর তালুকদার। বিয়ের পরও প্রেমের ফাঁদে ফেলে ওই কিশোরীর (প্রেমিকা) সঙ্গে একাধিকবার দৈহিক সম্পর্ক করে লুৎফুর।
এতে ওই কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে যায়। বর্তমানে ৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্কুলছাত্রী। অনাগত সন্তানের পিতৃপরিচয় পেতে প্রেমিকা অবস্থান নিয়েছেন প্রেমিকের বাড়িতে। এদিকে এক বছর আগে বিয়ে করা লুৎফুর তালুকদারের স্ত্রীও এখন অন্তঃসত্ত্বা। ঠিক এমন অবস্থায় উধাও ওই যুবক।
ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার একটি গ্রামে ওই ঘটনা ঘটেছে। ওই প্রেমিকা গত শুক্রবার থেকে লুৎফুর তালুকদারের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে। দুদিন ধরে স্ত্রীর মর্যাদা ও অনাগত সন্তানের পিতৃপরিচয় ফিরে পেতে ওই বাড়িতে আকুতি-মিনতি করে যাচ্ছে ওই কিশোরী। তবে মন গলছে না লুৎফুরের স্বজনদের।
এদিকে কিশোরীর ওই অবস্থার কথা পুলিশ জানতে পেরেছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ভাঙ্গা সার্কেল) রবিউল ইসলাম ও থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী সাঈদুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য ওই কিশোরীর প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়।
জানা যায়, ওই কিশোরী ৪০ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা। গত শনিবার সকালে প্রেমিক লুৎফুর তালুকদারের বিরুদ্ধে ভাঙ্গা থানায় একটি মামলা করে ওই কিশোরীর পরিবার। এতে আসামি করা হয়েছে প্রেমিক লুৎফুর তালুকদারকে। মামলা নম্বর ৫১।
ওই কিশোরীর বাবা বলেন, দিনমজুরি করে চার মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে কোনোরকম সংসার চলে আমার। নবম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় টাকার জন্য মেয়েটিকে মিলে কাজ করতে পাঠাই। প্রেমের সম্পর্ক গড়ে লুৎফুর আমার মেয়ের এই সর্বনাশ করেছে। আমার মেয়ের মর্যাদা রক্ষার জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানাই।
ওই কিশোরী বলেন, আমার সঙ্গে দীর্ঘ তিন বছর ধরে প্রেম করে আসছে লুৎফুর। আমার গর্ভে সন্তান রয়েছে বিষয়টি লুৎফুর জানার পর আমাকে ঘরে তুলে নেবে এবং স্ত্রীর মর্যাদা দেবে বলে কয়েক মাস ধরে ঘোরাচ্ছে। আমার সন্তান প্রসবের সময় হয়ে যাওয়ায় বিষয়টি আমি পরিবারকে জানাই। আমি স্ত্রীর মর্যাদা নিয়ে সমাজে বাঁচতে চাই।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত লুৎফুরের বাবা সিদ্দিক তালুকদার বলেন, আমার বাড়িতে শুক্রবার থেকে অবস্থান নিয়েছে সাদিয়া। এদিকে আমার ছেলে বিবাহিত ও সেই স্ত্রীও অন্তঃসত্ত্বা। তিনি এমন ঘটনাকে ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেন।
ভাঙ্গা থানার ওসি কাজী সাইদুর রহমান বলেন, লুৎফুরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছি। এ ঘটনার ব্যাপারে কোনোরকম ছাড় দেয়া হবে না প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com