Home / Breaking News / চাঁদপুরে শহরের পুরাণবাজারের একটি বাড়িতে মাটি খুঁড়ে গুপ্তধন পাওয়া গেছে বলে এলাকায় ব্যাপক গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে।

চাঁদপুরে শহরের পুরাণবাজারের একটি বাড়িতে মাটি খুঁড়ে গুপ্তধন পাওয়া গেছে বলে এলাকায় ব্যাপক গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে।

ষ্টাফ রির্পোটারঃ
সোমবার দুপুরে পালপাড়া কুন্ডু বাড়ির ব্যবসায়ী সুভাষ পোদ্দারের বাড়িতে এ গুপ্তধন পাওয়া যায় বলে জানা গেছে।
স্থানীয় লোকজন জানায়, শহরের পালপাড়ার বাসিন্দা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সুভাষ পোদ্দার তার শতাধিক বছরের পুরনো বাড়ির টিনের ঘর ভেঙে নতুন করে করার সময় মাটি কাটতে গিয়ে পাতিলে থাকা গুপ্তধনের সন্ধান পায়।
দুপুরে সেখানে কাজ করতে আসা মিস্ত্রি সুভাষ, সুব্রত, আলামিন ও কবির ঘরের পালা স্থাপনের জন্য মাটি কাটে। এ সময় মাটির নিচ থেকে একটি গুপ্তধনের পাতিলে বের হয়। সেই পাতিলের ভেতর প্রায় ২ শ’ বছরের পুরনো দুই শতাধিক প্রাচীন মুদ্রা দেখতে পায় তারা। মুদ্রাগুলো রুপা ও স্বর্ণের ছিল বলে ধারণা উদ্ধারকারীদের। কিন্তু ভাগাভাগিতে সমস্যা সৃষ্টি হওয়ায় পরে উদ্ধারকারীরা গুপ্তধনের কথা ফাঁস করলে সবার মধ্যে সেটি জানাজানি হয়ে যায়।
অভিযোগ ওঠে, এই খবর পাওয়ার পর মাটির নিচ থেকে তোলা পাতিলে শত পুরনো মহামূল্যবান মুদ্রাগুলো বাড়ির মালিক সুভাষ পোদ্দার নিজে তড়িঘড়ি করে লুকিয়ে ফেলেন। তিনি ওইগুলো অকেজো কিছু মুদ্রা বলে সেখানে কাজ করতে আসা মিস্ত্রিদের বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু ঘটনাটি জানাজানি হলে গুপ্তধন উদ্ধার নিয়ে এলাকায় ব্যাপক গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে।
এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য বাড়ির মালিক সুভাষ পোদ্দারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
এদিকে সুভাষ পোদ্দারের বাড়ি থেকে শত বছরের মহা মূল্যবান মুদ্রা উদ্ধার হওয়ার ঘটনাটি প্রশাসনকে না জানিয়ে তিনি নিজেই আত্মসাৎ করেছেন বলে এলাকার স্থানীয়দের মাঝে ব্যাপক গুঞ্জনের সৃষ্টি হয়।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com