Home / Uncategorized / পারিবারিক কবরস্থানে চিরনিদ্রায় অভিনেতা আনিস

পারিবারিক কবরস্থানে চিরনিদ্রায় অভিনেতা আনিস

ফেনী প্রতিনিধিঃ
ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার বল্লবপুর গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে কৌতুক অভিনেতা আনিসুর রহমান আনিসকে। গতকাল সোমবার বাদ মাগরিব তৃতীয় জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন তাঁর জামাতা আলাউদ্দিন শিমুল।
আলাউদ্দিন শিমুল এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘গতকাল বাদ মাগরিব জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁর লাশ দাফন করা হয়েছে। গতকাল এফডিসিতে জানাজা শেষ করে আমরা সরাসরি ফেনীর উদ্দেশে রওনা দিই। আসরের আজানের আগেই পৌঁছে যাই। সারা দেশের মানুষ উনাকে যেমন চেনে, তেমনি ফেনীর মানুষ উনাকে পছন্দ ও সম্মান করে। শেষ দেখার জন্য হাজার হাজার মানুষ এসেছিলেন। কেঁদেছেন অনেকেই।’
গতকাল দুপুর ১২টার দিকে এফডিসিতে অভিনেতা আনিসুর রহমান আনিসের দ্বিতীয় জানাজা সম্পন্ন হয়। তাঁর জানাজায় উপস্থিত ছিলেন এনটিভির পরিচালক আলহাজ্ব নূরউদ্দিন আহমেদ, নায়ক আলমগীর, মিশা সওদাগর, ওমর সানী, প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু, শাহ আলম কিরণ, অপূর্ব রানা প্রমুখ। টিকাটুলী জামে মসজিদে গতকাল সকাল ৯টায় আনিসের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।
স্বনামধন্য কৌতুক অভিনেতা আনিসুর রহমান আনিস গত রোববার রাত ১১টার দিকে রাজধানীর টিকাটুলীর নিজ বাসায় মারা যান। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর।
আনিসের ছোট মেয়ের স্বামী মোহাম্মদ আলাউদ্দিন শিমুল জানান, রোববার রাতে তাঁর শ্বশুরের (আনিসুর রহমান আনিস) স্ট্রোক হয়।
১৯৬০ সালে ‘বিষকন্যা’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেন আনিসুর রহমান আনিস। যদিও ছবিটি মুক্তি পায়নি। ১৯৬৩ সালে মুক্তি পায় তাঁর অভিনীত প্রথম ছবি জিল্লুর রহমান পরিচালিত ‘এই তো জীবন’। বাংলাদেশ টেলিভিশনের অসংখ্য জনপ্রিয় নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। নবাব সিরাজউদ্দৌলা নাটকে গোলাম হোসেন চরিত্রে অভিনয় করে মঞ্চে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছিলেন। প্রখ্যাত চলচ্চিত্রকার ভ্রাতৃদ্বয় এহতেশাম ও মুস্তাফিজের লিও দোসানী ফিল্মসে সহকারী সম্পাদক ও পরিচালক ছিলেন আনিসুর রহমান আনিস।

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com